আরও সাহসী ‘প্রথম আলো’!

apte
হারুন উর রশীদ:
একটু গভীর রাতে অনলাইনের খবরগুলো দেখার বাতিক আছে আমার। আর তা দেখতে গিয়েই আমি গতরাতে (২০.০৯.১৬) ‘প্রথম আলোর’ অনলাইনের প্রথম পাতায় খবরটি দেখি। শিরোনামটাও বেশ-‘শয্যাসঙ্গী হওয়ার প্রস্তাব পেয়েছিলেন রাধিকা!’ রাধিকা মানে বলিউডের অভিনেত্রী রাধিকা আপ্তে।
খবরের মূল কথা হলো, অভিনয় করতে গিয়ে তিনি নানা ধরণের বিব্রতকর প্রস্তাব পেয়েছেন। তারমধ্যে প্রতিষ্ঠা দেয়ার বিনিময়ে তাকে শয্যাসঙ্গী হওয়ার প্রস্তাবও দেয়া হয়েছে।
খুবই ‘ভালো খবর’। টাইমস অব ইন্ডিয়া গ্রুপের সহযোগী নিউজ পোর্টাল ‘ইন্ডিয়া টাইমস’ থেকে খবরটি অনুবাদ করে ছেঁপে প্রথম আলো খুবই ভালো কাজ করেছে( যা কিছু ভালো তার সঙ্গে প্রথম আলো)।
390508-360178-radhika-hi-res
শুধু তাই নয় ‘ইন্ডিয়া টাইমস’ থেকে অনুবাদ করতে গিয়ে প্রথম আলো খাঁটি বাংলা প্রয়োগ করেছে। ইন্ডিয়া টাইমস শব্দ ব্যবহারে যতটুকু রাখঢাক করেছে প্রথম আলো তা করেনি। প্রথম আলো মশলার রসায়ণ ভালো করে প্রয়োগ করেছে। আর পাঠকদের সুবিধার জন্য মূল শিরোনামটিও স্বল্পবসনা করেছে-‘ ‘শয্যাসঙ্গী হওয়ার প্রস্তাব পেয়েছিলেন রাধিকা!’। ইংরেজিতে প্রকৃত শিরোনামটি হল, Radhika Apte Confessed About Facing Casting Couch In Bollywood & How She Tackled It Like A Boss’.
পাঠক প্রথম আলোর শিরোনামের কারণে শুরুতেই মজা পেয়ে যান। প্রবেশ করেন আরো গভীরে- মূল খবরে। এটা যারা নতুন ফিল্ম ইন্ডাস্ট্রিতে আসতে চান বা আসবেন তাদের জন্য অবশ্য পাঠ্য। কারণ তাদেরওতো রাধিকার মত সমালাতে হবে।
কিন্তু সাধারণ পাঠক কী পাবেন! তাই হয়তো প্রথম আলো প্রতিবেদনটি সার্বজনীন করার প্রয়াস পেয়েছে। তাদের জন্য কাঁচা আমটিকে পাকিয়ে রসালো করেছে। সব পাঠক, নারী-শিশু-তরুন-তরুনী-ছেলে-বুড়ো’র জন্য প্রথম আলোর এই প্রয়াস আমাকে ‘মুগ্ধ’ করেছে।
কিন্তু এত ‘ভাল’ একটি প্রতিবেদন আজ(২১.০৯.১৬) সকাল বেলা প্রথম আলোর ছাঁপা সংস্করণে তন্ন তন্ন করে খুঁজেও পেলাম না। আমি হতাশ হলাম। পয়সা দিয়ে পত্রিকা কিনে প্রথম আলোর পাঠকরা এত গুরুত্বপূর্ণ একটি সংবাদ থেকে বঞ্চিত হলেন! আর আমরা যারা অনলাইনে প্রথম আলো রিলিফে (বিনে পায়সায়) পড়ি তারা কিন্তু খবরটি পেয়েছি। অবশ্য মধ্য রাতে একটু রাত জেগে।
cbw
আমি লক্ষ্য করেছি প্রথম আলো এধরণের ‘ভাল খবর’ কেন যেন মধ্য রাতেই দিতে পছন্দ করে! এমনও হতে পারে বিনে পয়সায় ভালো খবরের জন্য একটু কষ্টতো করতেই হবে। কিন্তু পয়সা দিয়ে যারা ছাঁপা কাগজ কেনেন তারা কী দোষ করলো? আমি দাবী করছি তাদের বঞ্চিত না করে খবরটি প্রথম আলোর ছাঁপা সংস্করণেও প্রকাশ করা হোক। যারা টাকা দিয়ে পত্রিকা কেনেন তাদেরতো একটু বেশিই পাওয়া উচিৎ।
টাইমস অব ইন্ডিয়া তাদের মূল অনলাইনে খবরটি ছাঁপেনি। প্রথম আলো তাদের মূল অনলাইনেই ছেঁপেছে। প্রথম আলো এজন্য ধন্যবাদ পেতে পারে । কারণ তারা সাহসী হয়েছে। যেমন আমরা মাঝে মাঝে খবর পাই-‘ নায়িকা বিন্নির আরও সাহসী হতে আপত্তি নেই।’
প্রথম আলো কিন্তু হিসেবে ভুল করেনি। পাঠক কিন্তু খবরটি লুফে নিয়েছে। তার প্রমাণ ‘শয্যাসঙ্গী হওয়ার প্রস্তাব পেয়েছিলেন রাধিকা!’- শিরোনামের খবরটি এরইমধ্যে সর্বাধিক পঠিত খবরের তালিকায় উঠে এসেছে।
সর্বাধিক প্রচারিত দৈনিকে সর্বাধিক পঠিত খবরতো এরকমই হবে। কী বলেন আপনারা?
কলাবাগান, ঢাকা
২১.০৯.২০১৬

Leave a Reply

Fill in your details below or click an icon to log in:

WordPress.com Logo

You are commenting using your WordPress.com account. Log Out / Change )

Twitter picture

You are commenting using your Twitter account. Log Out / Change )

Facebook photo

You are commenting using your Facebook account. Log Out / Change )

Google+ photo

You are commenting using your Google+ account. Log Out / Change )

Connecting to %s