বদরুল-এর ফেসবুক যা বলছে

%e0%a6%b8%e0%a7%87%e0%a6%b2%e0%a6%ab%e0%a6%bf

ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় ছাত্রলীগ-এর সাংগঠনিক সম্পাদক মাহবুব হাসান বকুল-এর সঙ্গে বদরুল-এর সেলফি

 

হারুন উর রশীদ:

শাহজালাল বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়(শাবি) শাখা ছাত্রলীগের সহ-সম্পাদক বদরুল আলমের ফেসবুক পেজ বিশ্লেষণ করলে ফাতেমা বেগম নার্গিসকে হত্যা পরিকল্পনা স্পষ্ট হয়। হত্যাকান্ডের আগে সর্বশেষ স্ট্যাটাসে স্পষ্টতই ইঙ্গিত ছিল। আর ফেসবুকেই তার রাজনৈতিক পরিচয়ও প্রকাশ পায়। প্রকাশ পায় তার নার্সিসিস্ট মনোভাবের।

3-zzz
৩ অক্টোবর নার্গিসকে কোপানোর ৪৯ মিনিট আগে বদরুল এই স্ট্যাটাস দেয় তার ফেসবুকে-
‘নিষ্ঠুর পৃথিবীর মানুষগুলোর কাছে আমি সবিনয়ে ক্ষমাপ্রার্থী। প্রকৃতপক্ষে আল্লাহ ছাড়া কেউ আপন নয়।’
এই স্ট্যাটাসে স্পষ্ট যে বদরুল কিছু একটা করতে যাচ্ছে। তবে তা ঠান্ডা মাথায়। আর সেকারণে সে ক্ষমা চাইছে। আর পৃথিবীর মানুষকে নিষ্ঠুর বলছে। আসলে এখানে সে তার টার্গেটকেই নিষ্ঠুর বলছে। এটা অপরাধীদের একটা কৌশল। নিষ্ঠুর বলে সে তার পরিকল্পিত অপরাধের পক্ষে যুক্তি তৈরি করে। সবাইকে শত্রুর তালিকায় ফেলছে। তার মানে হল সে তার মানবিক গুনাবলী হারিয়ে ফেলেছে। দানব হয়ে উঠছে।

zzkeavw
এর আগে ২১ সেপ্টেম্বর বদরুল আর এক পোস্টে লেখে
‘বিশ্বাসঘাতকতার যন্ত্রণা হজম করা খুব কঠিন।তবে বিশ্বাসঘাতকদের ক্ষমা করে দিতে পারা সর্বোচ্চ মহানুভবতার পরিচায়ক।সুন্দর ব্যবহার প্রদর্শনের মাধ্যমে যারা বিশ্বাসঘাতকদের বিশ্বস্ত করে গড়ে তুলতে পারেন;তারাই মানবতার মহান শিক্ষক।তা-ই যেন করতে পারি।বিশ্ব শান্তি দিবসে বিশ্বস্ত আর বিশ্বাসঘাতক দুই সম্প্রদায়ের লোকদের জন্যই শান্তি কামনা করি।আল্লাহুম্মা আমিন-ছুম্মা আমিন।’
এই স্ট্যাটাসে স্পষ্ট যে একটি চুড়ান্ত সিদ্ধান্ত নিতে যাচ্ছে। তবে তার আগে কিছুটা ভেবে নিতে চায়। সে প্রচ্ছন্নভাবে নাম উল্লেখ না করে নার্গিসকে বিশ্বাসঘাতক হিসেবে অভিহিত করছে। অন্যদিকে নিজে মানবিক বলে প্রমাণের চেষ্টা করছে। চেষ্টা করছে শান্তিবাদী হিসেবে প্রমাণের। অপরাধী মন এভাবেই নিজেকে ঢাকতে চায়। অপকর্মের পক্ষে সাফাই গায়।
দু’টি স্ট্যাটাস-এ সে বার বার ধর্মকে ব্যবহার করেছে। অপরাধী মন কখনো কখানো ধর্মের কথা বেশি বলে। কারণ সে ধর্মের দোহাই দিয়ে নিজের অপরাধকে আড়াল করতে চায়। যুক্তি খোঁজে অপরাধের।

ywcr
বদরুল ছাত্রলীগ
বদরুল ছাত্রলীগ কিনা তা নিয়ে বিতর্কের তেমন কোন অবকাশ নেই। এরইমধ্যে প্রমাণ হয়ে গেছে যে সে শাহজালাল বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়(শাবি) শাখা ছাত্রলীগের সহ-সম্পাদক। বদরুল তার ফেসবুক ওয়ালেও তার প্রমাণ রেখেছে। গত ১২ সেপ্টেম্বর ছাত্রলীগ নেতা হিসেবেই ‘হৃদয়ের গভীর থেকে “ঈদ মোবারক”……. জানিয়েছে সে ।
বদরুল-এর ওয়ালে ঘৃণা আর প্রতিবাদ
এখন বদরুলের ফেসবুক পেজটিতেই বদরুলের প্রতি ঘৃণা প্রকাশ করছেন ফেসবুক ব্যবহারকারীরা। তার ফেসবুক ফ্রেন্ড , ফলোয়ার সবাই। আর এই ঘৃণা প্রকাশের কারণে নাজমুলের ফেসবুক পেজের ফলোয়ার বেড়ে যাচ্ছে।

14516399_738648072941027_405175798837565383_n
সেলফি প্রীতি
বদরুল-এর সেলফি প্রীতি ব্যাপক। তার ওয়ালে নানা ফ্রেমে, নানা ঢং-এ প্রায় অর্ধশত সেলফি পোস্ট দেখা যায়। সেলফি’র সঙ্গে নার্সিজম-এর একটি যোগ আছে। নার্সিসিজম মানে আত্মপ্রেম। এটা বাড়াবাড়ি পর্যায়ে যাওয়া মনে খুবই ভয়ঙ্কর। যা বদরুলের ক্ষেত্রে দেখা যায়।

নিজের ভুল কখনও মেনে নিতে রাজি নন নার্সিসিজমে ভুগছেন এমন মানুষগুলো। নিজের কারণে কোনো ভুল হয়ে গেলে তা ঘুরিয়ে অন্যের উপর দায় চাপিয়ে দেন তারা। ‘তোমার কারণে আমি এমন করেছি’ এমন বাক্য তাদের মুখে প্রায়ই শোনা যায়।
তার ফেসবুক স্ট্যাটাসগুলোতেও নার্সিসিজম(narcissismস্পষ্ট। সে নিজেকে ছাড়া পৃথিবীর আর সবাইকে খারাপ মনে করে। এর পেছনে রয়েছে ক্ষমতার দম্ভ। তাই সে সেই ক্ষমতা দিয়ে সবকিছু দখল করতে চেয়েছে।

আপনিও চাইলে এখানে ক্লিক করে বদরুলের ফেসবুক পেজে একবার ঢু মারতে পারেন-

%e0%a6%a8%e0%a6%95%e0%a6%a4%e0%a6%ac%e0%a6%86

কলাবাগান, ঢাকা
০৫.১০.২০১

Leave a Reply

Fill in your details below or click an icon to log in:

WordPress.com Logo

You are commenting using your WordPress.com account. Log Out / Change )

Twitter picture

You are commenting using your Twitter account. Log Out / Change )

Facebook photo

You are commenting using your Facebook account. Log Out / Change )

Google+ photo

You are commenting using your Google+ account. Log Out / Change )

Connecting to %s