কে কাকে বিবস্ত্র করে…

1713299999

হারুন উর রশীদ:
তরুনী সব কথা তার অভিযোগে বলতে পারেননি। অভিযোগে লেখা যায়নি শব্দ বা বাক্য গুচ্ছ। কারণ তারও লজ্জা আছে। আছে সমাজ , আছে লোকলজ্জা, আছে সংস্কৃতি।
কিন্তু তিনি যা লিখেছেন তাই শুনুন। কুমিল্লা বিশ্ববিদ্যালয়ের দুই ছাত্রলীগ নেতা জসিম উদ্দিন এবং মাসুদ আলম একই বিশ্ববিদ্যালয়ের এক ছাত্রীকে যে ভাষায় হুমকি দিয়ে তা একটু হজম করার চেষ্টা করুন-‘ তোর দেমাগ বেশি। তোকে ক্যাম্পাসে বিবস্ত্র করবো। বিবস্ত্র করে ঝাল তুলবো, তোকে ক্যাম্পাসে পেটাবো। কারও কাছে কোনও অভিযোগ করলে গুম করে ফেলবো।’ ( সূত্র: বাংলা ট্রিবিউন )
বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসনের কাছে অভিযোগ করার পর ওই ছাত্রী সাংবাদ মাধ্যমকে বলেছেন,‘ যেসব বাজে কথা আমাকে ওরা বলেছে তার একটুমাত্র উল্লেখ করেছি। সব কথা উল্লেখ করতে নিজেরও লজ্জা লাগে।’
বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসন অভিযোগের তদন্ত শুরু করেছে। তবে দুই ছাত্রলীগ নেতা দাবী করেছেন ওই ছাত্রীর সঙ্গে তাদের নাকি দেখাই হয়নি!
তাদের একজন জসিম উদ্দিন বঙ্গবন্ধু হল ছাত্রলীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক এবং মাসুদ আলম একই হলের প্রচার সম্পাদক। তবে ছাত্রলীগের কেন্দ্রীয় কমিটি এখনো বলেনি যে ওরা ছাত্রলীগের কেউ নয়। কারণ ওই ছাত্রীতো এখনো চাপাতির নিচে পড়েনি। হাসপাতালে যেতে হয়নি। অথবা মর্গে যায়নি।

5_482843ওই ছাত্রীতো দিব্যি বেঁচে আছে। বেঁচে আছে যে তার প্রমাণ সে লিখিত অভিযোগ করেছে প্রক্টরের কাছে। সামান্য বিবস্ত্র করার হুমকিতে আবার কিসের বিচার!
আর এখন ঘটনা উল্টোও ঘটতে পারে। তদন্তে এমনও বেরিয়ে আসতে পারে যে ওই ছাত্রীই দুই ছাত্রলীগ নেতার ‘সম্মান হানি’র জন্য মিথ্যে অশ্লিল অভিযোগ করেছে। প্রক্টরের ঘাড়ে কয় মাথা যে ছাত্রলীগ নেতাদের বিরুদ্ধে যাবেন!
সিলেটে ছাত্রলীগ নেতা বদরুল আলম খাদিজা বেগম নার্গিসকে কোপানোর পর হাতেনাতে ধরা পড়েছিল বলে কথা। এটা বদরুলের দুর্ভাগ্য! ধরা না পড়লে আর ভিডিও বা ছবি না থাকলে কে বলতো বদরুল কুপিয়েছে?
বদরুল যখন একা কুপিয়েছে কয়েকশ’ মানুষ দাড়িয়ে দেখেছে, কাছে যেতে সাহস করেনি। আর বদরুল যদি কোনোভাবে সত্যিই পালিয়ে যেতে পারতো তাহলেতো বীর বেশে ফিরে আসতো। হয়তো তখন কুমিল্লা বিশ্ববিদ্যালয়ের ছাত্রলীগ নেতাদের মত বলতো আমিতো নার্গিসকে চিনিই না। ওদিকেতো গত সাত দিনে যাই ই নাই!
আর তাহলে হয়তো বদরুলকে অস্বীকার করতো না ছাত্রলীগ। হয়তো বলতো অপরাধী যে-ই হোক শাস্তি পাবে, কিন্তু বদরুল জড়িত নয়। হয়তো বদরুলও ‘অপরাধী’র বিচার চেয়ে একখানা বিবৃতি দিয়ে বসতো। কিন্তু বদরুলের মন্দভাগ্য সে ত্যাজ্য হয়েছে ধরা পড়ে, গনপিটুনির শিকার হয়ে। আহাম্মক একটা!

14572229_1573236582702140_1229667425518699414_n
আমি এসব বলছি একারণে যে, এই বদরুল এরআগে ২০১২ সালে সিলেট-সুনামগঞ্জ সড়কের ঘোপাল এলাকায় নার্গিসকে উত্ত্যক্ত করতে গিয়ে এলাকাবাসীর গণধোলাইয়ের শিকার হয়েছিল। আর সে সেই গণধোলাইয়ের ঘটনাকে জামায়াত-শিবিরের হামলা বলে প্রচার চালিয়ে সফল হয়। সহ-সম্পাদক হিসেবে জায়গা করে নেয় শাবি ছাত্রলীগের কমিটিতে।
এখনো বদরুলরা থেমে নাই। এরইমধ্যে নার্গিসের ওপর হামলার বিচার চেয়ে সিলেটে আন্দোলন সংগঠিত করায় হত্যার হুমকি দেয়া হয়েছে আন্দেলনকারী শিক্ষার্থীদের একজন ফজিলাতুন্নেসাকে। তাকেও নার্গিসের পরিণতি বরণ করতে হবে বলে হুমকিদাতা জানিয়েছে।
বদরুলদের কারণে ছাত্রলীগ যে বিপদে আছে তা বোঝা যায়। এই বদরুলদের কলঙ্ক থেকে বের হয়ে আসতে চায় তারা সবাই মিলে। যুব মহিলা লীগের তিন নেত্রীও সেই চেষ্টায় শামিল হন। স্কয়ার হাসপাতালে গিয়ে নিবিড় পরিচর্যা কেন্দ্রে অজ্ঞান নার্গিসের সঙ্গে সেলফি তুলে তা ফেসবুকে পোস্ট দিয়ে দেশের মানুষকে জানাতে চেয়েছেন নার্গিস বেঁচে আছে, সে সুস্থ হয়ে উঠবে। তার মৃত্যুর গুজবে যাতে কেউ কান না দেন। কিন্তু পরিস্থিতি যখন খারাপ হয় তখন হয়তো কেউ কেউ স্থান-কাল-পাত্র ভুলে যান। ভুল করেন। তাই সেলফি হয়ে উঠলো আরেক বিপদ। আরেক ঝামেলা। গাছের যে ডাল ধরেন সেই ডালই যেনো ভেঙ্গে যায়।
ফিরে আসি কুমিল্লা বিশ্ববিদ্যালয়ের দুই ছাত্রলীগ নেতার ‘বিবস্ত্র হুমকিতে’। অনুরোধ জানাই ছাত্রলীগ- যুবলীগ নেতাদের কার্যকর পদক্ষেপ নিতে। আজ বিবস্ত্র করার হুমকি দিয়েছে। কাল হয়তো বিবস্ত্র করবে। পরশু করবে চাপাতির ব্যবহার। তখন হয়তো আপনারা ত্যাজ্য করে সেলফি তুলবেন। কিন্তু আমরা আর কোনো বদরুল দেখতে চাইনা। চাইনা অমানবিক সেলফি। চাইনা বিবস্ত্র অবস্থা দেখতে।
আর ভাবুন কে কাকে বিবস্ত্র করছে।
কলাবাগান , ঢাকা
০৭.১০.২০১৬

Leave a Reply

Fill in your details below or click an icon to log in:

WordPress.com Logo

You are commenting using your WordPress.com account. Log Out / Change )

Twitter picture

You are commenting using your Twitter account. Log Out / Change )

Facebook photo

You are commenting using your Facebook account. Log Out / Change )

Google+ photo

You are commenting using your Google+ account. Log Out / Change )

Connecting to %s