মৎস্যমন্ত্রী হিন্দুদের বললেন ‘…বাচ্চা’

sayedul

হারুন উর রশীদ:

মানবাধিকার নেতা , হিন্দু-বৌদ্ধ- খ্রিস্টান ঐক্য পরিষদ এবং পুজা উদযাপন পরিষদের নেতারা বুধবার ব্রাহ্মণবাড়িয়ার নাসির নগরে যান হামলার শিকার হিন্দুদের অবস্থা দেখতে। তাদের মধ্যে হিন্দু-বৌদ্ধ-খ্রিস্টান ঐক্য পরিষদ-এর সভাপতি মন্ডলির সদস্য এবং জাতীয় পূজা উদযাপন পরিষদের সাবেক সভাপতি কাজল দেবনাথও ছিলেন।

হামলার শিকার হিন্দুদের অবস্থা সারেজমিন দেখার পর কাজল দেবনাথ অভিযোগ করেন,‘ এই এলাকায় মোট হিন্দু ভোটার ৫০ হাজার। অথচ এই এলাকার এমপি মৎস্যমন্ত্রী ঘটনার পর এসে ডাকবাংলোয় বসে আছেন। ক্ষতিগ্রস্তদের দেখতে যান না।  সাংবাদিকরা গেলে তাদের গালিগালাজ করেন, বলেন সাংবাদিকরা বেশি বাড়াবাড়ি করছে। আর আমাদের লোকদের বলেন মালাউনের বাচ্চা।’

তিনি আরো অভিযোগ করেন,‘ আইনমন্ত্রীও ব্রাহ্মণবাড়িয়ার তিনি প্রধান বিচারপতির ব্যাপারে কথা বলার সময় পান। আর  এদের নিয়ে কথা বলার সময় পাননা। আর মৎস্যমন্ত্রী বলেন মালাউনের বাচ্চা’।

অবশ্য ঘটনার পাঁচদিন পর বৃহস্পতিবার বিকেলে মৎস্য ও প্রাণিসম্পদমন্ত্রী অ্যাডভোকেট ছায়েদুল হক ক্ষতিগ্রস্ত গৌরমন্দির পরিদর্শন শেষে হিন্দু সম্প্রদায়ের সঙ্গে ‘মত-বিনিময়’ করেছেন। আর বলেছেন, ‘ কোনো মৌলবি বা হেফাজত ব্রাহ্মণবাড়িয়ার নাসিরনগরে হিন্দু সম্প্রদায়ের ওপর হামলার ঘটনা ঘটায়নি, বহিরাগতরা এই হামলা চালিয়েছে।’

এদিকে কাজল দেবনাথের অভিযোগের ব্যাপারে জানতে বুধবারই মৎস্যমন্ত্রীর সঙ্গে কয়েক দফা টেলিফোনে যোগাযোগের চেষ্টা করেও তাঁকে পাওয়া যায়নি।

তবে মন্ত্রী সায়েদুল হক শুক্রবার রাতে টেলিফোনে দাবী করেন,‘ আমি হিন্দুদের মালাউনের বাচ্চা বলিনি। হিন্দু-বৌদ্ধ-খ্রিস্টান ঐক্য পরিষদের কতিপয় নেতা অপপ্রচার চালাচ্ছে। আমি চ্যালেঞ্জ করছি যারা এটা বলছে তারা প্রমাণ করুক। কে শুনেছে তার প্রমাণ দিক।’

 

 

Leave a Reply

Fill in your details below or click an icon to log in:

WordPress.com Logo

You are commenting using your WordPress.com account. Log Out / Change )

Twitter picture

You are commenting using your Twitter account. Log Out / Change )

Facebook photo

You are commenting using your Facebook account. Log Out / Change )

Google+ photo

You are commenting using your Google+ account. Log Out / Change )

Connecting to %s